লাল বাদশার দাম ৮ লাখ টাকা

এবারের কোরবানির পশুর হাটে আসছে টাঙ্গাইলের নাগরপুরের ‘লাল বাদশা’। ফ্রিজিয়ান জাতের ষাঁড় গরুটির ওজন প্রায় ২০ মণ। নাগরপুর উপজেলার চাঁনপাড়া গ্রামের খামারি মো. আব্দুস ছালাম গরুটি পালন করেছেন। তিনি লাল বাদশার দাম হাঁকাচ্ছেন ৮ লাখ টাকা। প্রতিদিন দূর-দূরান্ত থেকে লাল বাদশাকে দেখতে খামারে ভিড় করছে উৎসুক জনতা।

খামারি আব্দুস ছালাম বলেন, গরুকে মোটাতাজা করার খাবার খাওয়ানোর সাধ্য আমার নেই। তাই নাগরপুর উপজেলার পল্লী ডাক্তার বোরহানের সঙ্গে যোগাযোগ করি। তিনি বলেন, প্রয়োজনের ভিত্তিতে প্রাকৃতিক সুষম খাবার খাওয়ালে অর্থ ও ঝুঁকি দুইই কমবে এবং নিরাপদ মাংস উৎপাদিত হবে। তার পরামর্শেই আজ লাল বাদশার ওজন প্রায় ৮২০ কেজি। গরুটিকে মোটাতাজা করতে কোনো প্রকার ওষুধ বা ইনজেকশন ব্যবহার করা হয়নি। লাল বাদশার দাম আট লাখ টাকা হলে বিক্রি করবেন বলে তিনি জানান।

এ প্রসঙ্গে নাগরপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আশিক সালেহীন বলেন, গরুটি সম্পূর্ণ দেশীয় খাবার খাইয়ে লালন-পালন করা হয়েছে। গরুটি ফ্রিজিয়ান জাতের। এ জাতের গরু এখন আমাদের দেশের খামারিরা লালন-পালন করছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

সখীপুরে ছয় গুণীজনকে সম্মাননা প্রদান
তিন মাসের ছুটি নিয়ে দেড় বছর যুক্তরাষ্ট্রে সহকারী শিক্ষিকা
মির্জাপুরে করোনার টিকা নিতে মানুষের আগ্রহ প্রতিদিনই বাড়ছে
সালিশি বৈঠকে মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা
ভেঙে পড়লো টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোর ব্রিজ
টাঙ্গাইলে ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখেন ক্লিনিক মালিক

আরও খবর