২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ মঙ্গলবার || ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম:
বন্ধ হচ্ছে করোনা লাইভ বুলেটিন, তথ্য মিলবে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ১২ দিনেও সন্ধান মেলেনি স্বর্ণ ব্যবসায়ীর টাঙ্গাইল এর বিশেষ অভিযানে ০৬ (ছয়) বোতল বিদেশী মদ উদ্ধারসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ভেঙে পড়লো টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোর ব্রিজ টাঙ্গাইলে ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখেন ক্লিনিক মালিক ধরা পড়লো বহুল আলোচিত মধুপুরের চার হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী সাগর আজ দেশের ৯ অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বাড়ছে পেঁয়াজের ঝাঁজ ম্যানসিটিকে হারিয়ে ফাইনালে আর্সেনাল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে টাঙ্গাইল শহর রক্ষা বাঁধ পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ এসপির বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলে চিকিৎসক-শিক্ষার্থীসহ আরও ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত একই পরিবারের ৪ জনকে গলাকেটে হত্যা, আটক ৩ ব্রিজ ভেঙে সিমেন্টবোঝাই ট্রাক বিলে, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন লাল বাদশার দাম ৮ লাখ টাকা করোনায় আক্রান্ত এমপি জোয়াহের ঘরকে ঠান্ডা রাখার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি বিনামূল্যে ফেসবুক ব্যবহারের প্যাকেজে বিটিআরসির নিষেধাজ্ঞা টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচি কার্যক্রমের উদ্বোধন গলার কাঁটা ৩শ ফুট মির্জাপুরের বংশাই রোড
 

মির্জাপুরে পুলিশের হাতে কামড় দিলেন মাদকসেবী

মির্জাপুরে পুলিশ সদস্যকে কামড়ে আহত করেছেন এক মাদকসেবী। মাদক সেবন ও বিক্রির সময় পুলিশ পাকড়াও করলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টায় পুলিশ সদস্যকে কামড়ে দেন তিনি। তবে আহত করলেও পুলিশ সদস্যের হাত থেকে পালিয়ে যেতে পারেননি ওই মাদকসেবী।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা সদরের মির্জাপুর সরকারি সদয় কৃষ্ণ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় শাকিল ও হাবিব নামে আরও দুজন পালিয়ে যায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আটক ইয়ানুর (২৮) পৌর এলাকার পোস্টকামুরী মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত নান্নু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, ইয়ানুর, শাকিল ও হাবিব দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক বিক্রি ও সেবন করে আসছিলেন। মঙ্গলবার দুপুরে মির্জাপুর সরকারি সদয় কৃষ্ণ উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত এক কক্ষে তারা মাদক সেবন ও বিক্রি করছিলেন। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফয়েজের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা তাদের আটক করতে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় কনস্টেবল আশিক মাদকসেবী ও ব্যবসায়ী ইয়ানুরকে জাপটে ধরেন। এক পর্যায়ে ইয়ানুর কনস্টেবল আশিকের ডান হাতে সজোরে কামড় বসিয়ে আহত করেন। পরে কনস্টেবল আলআমিনসহ স্থানীয়রা এগিয়ে এসে সহায়তা করলে ইয়ানুরকে আটক করতে সক্ষম হন।

মন্তব্য করুন: