৭ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ শুক্রবার || ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম:
ভেঙে পড়লো টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোর ব্রিজ টাঙ্গাইলে ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখেন ক্লিনিক মালিক ধরা পড়লো বহুল আলোচিত মধুপুরের চার হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী সাগর আজ দেশের ৯ অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বাড়ছে পেঁয়াজের ঝাঁজ ম্যানসিটিকে হারিয়ে ফাইনালে আর্সেনাল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে টাঙ্গাইল শহর রক্ষা বাঁধ পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ এসপির বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলে চিকিৎসক-শিক্ষার্থীসহ আরও ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত একই পরিবারের ৪ জনকে গলাকেটে হত্যা, আটক ৩ ব্রিজ ভেঙে সিমেন্টবোঝাই ট্রাক বিলে, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন লাল বাদশার দাম ৮ লাখ টাকা করোনায় আক্রান্ত এমপি জোয়াহের ঘরকে ঠান্ডা রাখার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি বিনামূল্যে ফেসবুক ব্যবহারের প্যাকেজে বিটিআরসির নিষেধাজ্ঞা টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচি কার্যক্রমের উদ্বোধন গলার কাঁটা ৩শ ফুট মির্জাপুরের বংশাই রোড ইতালির পত্রিকায় বাংলাদেশের ভুয়া করোনা সার্টিফিকেটের খবর ফোর-জি সম্প্রসারণে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর তাগিদ জামানতবিহীন ঋণ পাবে আউটসোর্সিংয়ের উদ্যোক্তারা
 

নানা প্রয়োজনে বাইরে বের হচ্ছেন? জেনে নিন সুস্থ থাকার উপায়

কাজের প্রয়োজনে এখনও বাইরে বের হতে হচ্ছে অনেককে। কেউ পেশাদারিত্বের তাগিদে, কেউবা বাজার কিংবা হাসপাতালে। বিশেষ করে সংবাদকর্মী, চিকিৎসক, পুলিশ, ব্যাংকার- এদের বের হতে হচ্ছেই। তাই তাদের ক্ষেত্রে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বা ভয় স্বাভাবিকভাবেই কিছুট বেশি কাজ করে। এই সময়ে যাদের বাইরে বের হতেই হচ্ছে, তাদের সুস্থ থাকার জন্য কিছু উপায়-

এই অবস্থায় যারা বাইরে বের হচ্ছেন তারা বারবার হাত ধুয়ে ফেলুন, টিস্যুতে হাত মুছে ফেলে দিন ঢাকনা দেয়া বিনে। অহেতুক নাকে, মুখে বা চোখে হাত দেবেন না, এই পথেই ভাইরাস শরীরে প্রবেশ করে।

Upay-1

ভাড়া গাড়ি বা ট্যাক্সির ক্ষেত্রে সবচেয়ে বিপজ্জনক হচ্ছে দরজা খোলা ও বন্ধের হাতল। সম্ভব হলে তা মুছে নিয়ে তবে হাত দিন। গাড়ির দরজা বন্ধ করা ও খোলার পর অবশ্যই হাত স্যানিটাইজ করতে হবে। আর যাত্রাপথে মুখে-নাকে হাত দেয়া চলবে না।

অফিসে একসেট বাড়তি পোশাক রাখার ব্যবস্থা করুন সম্ভব হলে। তাহলে আর একটু বেশি নিশ্চিন্ত হওয়া যায়। যদি অসুস্থ অবস্থায় গাড়িতে ওঠেন তাহলে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক।

Upay-2

বাজার করতে, ওষুধ বা গ্যাস আনতে যেতে বাধ্য হচ্ছেন? তারাও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখুন অন্যদের থেকে। মনে রাখবেন, যেকোনো সারফেসে করোনা ভাইরাস অনেকক্ষণ বেঁচে থাকতে পারে। তাই কোনো কাউন্টারে ঠেস দিয়ে দাঁড়ানো চলবে না একেবারেই। ট্রলির হাতল থেকেও একইভাবে সাবধান হোন।

বাড়ি ফিরে জুতা পরিষ্কার করুন অ্যালকোহলযুক্ত ক্লিনজার দিয়ে। গরম সাবান-পানিতে জুতা ডুবিয়ে কেচে রোদ্দুরে শুকিয়ে নিন। আর যদি মনে হয় শরীর খারাপ লাগছে, নিজেকে আলাদা করে নিন, বিশ্রামে থাকুন ১৪ দিন।

মন্তব্য করুন: