১৪ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ শুক্রবার || ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম:
বন্ধ হচ্ছে করোনা লাইভ বুলেটিন, তথ্য মিলবে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ১২ দিনেও সন্ধান মেলেনি স্বর্ণ ব্যবসায়ীর টাঙ্গাইল এর বিশেষ অভিযানে ০৬ (ছয়) বোতল বিদেশী মদ উদ্ধারসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ভেঙে পড়লো টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোর ব্রিজ টাঙ্গাইলে ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখেন ক্লিনিক মালিক ধরা পড়লো বহুল আলোচিত মধুপুরের চার হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী সাগর আজ দেশের ৯ অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বাড়ছে পেঁয়াজের ঝাঁজ ম্যানসিটিকে হারিয়ে ফাইনালে আর্সেনাল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে টাঙ্গাইল শহর রক্ষা বাঁধ পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ এসপির বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলে চিকিৎসক-শিক্ষার্থীসহ আরও ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত একই পরিবারের ৪ জনকে গলাকেটে হত্যা, আটক ৩ ব্রিজ ভেঙে সিমেন্টবোঝাই ট্রাক বিলে, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন লাল বাদশার দাম ৮ লাখ টাকা করোনায় আক্রান্ত এমপি জোয়াহের ঘরকে ঠান্ডা রাখার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি বিনামূল্যে ফেসবুক ব্যবহারের প্যাকেজে বিটিআরসির নিষেধাজ্ঞা টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচি কার্যক্রমের উদ্বোধন গলার কাঁটা ৩শ ফুট মির্জাপুরের বংশাই রোড
 

করোনা: ঝুঁকি এড়াতে বিদেশফেরত প্রবাসীদের বাড়িতে লাল পতাকা

করোনাভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে ও স্থানীয়দের সচেতন করতে টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বিদেশফেরত ৪৫৩ জন প্রবাসীদের বাড়ির সামনে লাল পতাকা টানিয়ে ও স্টিকার লাগিয়ে দেয়া হয়েছে।

সোমবার (২৩ মার্চ) দুপুরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বল্লা এলাকায় সিঙ্গাপুর প্রবাসী আমিনুল ইসলাম ও মফিজুলের বাড়িতে লাল পতাকা ও স্টিকার লাগিয়ে এ কার্যক্রমের সূচনা করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম আরা নীপা, সহকারী কমিশনার ভূমি শাহরিয়ার রহমান, কালিহাতী থানার ওসি হাসান আল মামুন ও বল্লা ইউপি চেয়ারম্যান হাজী চাঁন মাহমুদ পাকির আলী প্রমূখ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম আরা নিপা বলেন, এ উপজেলায় গত ১৫ দিনে বিদেশ থেকে ৪৫৩ জন প্রবাসী এসেছে। আমরা প্রত্যেকের বাড়িতে একটি করে লাল পতাকা এবং একটি স্টিকার লাগিয়ে দিয়েছি। সেখানে সেই ব্যক্তির নাম-ঠিকানা এবং কবে বাংলাদেশে এসেছেন ও হোম কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ কবে শেষ হবে সে তথ্য আছে এবং সাথে আমাদের প্রশাসনের নাম্বার দেওয়া আছে। প্রবাসী যারা বাংলাদেশে এসেছেন তাদের পরিবারকে আমরা হালকাভাবে নিচ্ছি না।

আমি একই পরিবারের সকল সদস্যকে তারা যেন বাহিরে খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া না যায় এবং ওই বাড়িতে যে বয়স্ক সদস্য আছে তারা বিশেষ করে নামাজ, মসজিদে জামাতে যাচ্ছে, সে সুস্থ কিনা এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখার জন্য এবং ওই বাড়ির কেউ অসুস্থ হয়েছে কিনা সেটা জানার জন্য ওই বিদেশফেরত প্রবাসীর প্রত্যেকের প্রতিবেশীকে আমরা সচেতন করেছি। প্রতিবেশীরা জানাবে তারা বাহিরে বের হয় কিনা, জনসমাগম হচ্ছে কিনা। ইতিমধ্যে আমাদের এখানে হাট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। নিত্য প্রয়োজনীয় শুধু কিছু বাজার এখানে আছে জরুরি প্রয়োজনের জন্য।

এছাড়াও স্কুল-কলেজ সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বন্ধ রয়েছে। সকল ধরনের জনসমাবেশ, জনসভা, ধর্মীয় সভা এগুলো নিষেধ করা হয়েছে। আমরা আশা করছি আমাদের সকলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে এই সংক্রমণ রোধে ইনশাল্লাহ্ সফল হবো।

মন্তব্য করুন: