২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ মঙ্গলবার || ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম:
বন্ধ হচ্ছে করোনা লাইভ বুলেটিন, তথ্য মিলবে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ১২ দিনেও সন্ধান মেলেনি স্বর্ণ ব্যবসায়ীর টাঙ্গাইল এর বিশেষ অভিযানে ০৬ (ছয়) বোতল বিদেশী মদ উদ্ধারসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ভেঙে পড়লো টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশিল ইউনিয়নের দাপনাজোর ব্রিজ টাঙ্গাইলে ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখেন ক্লিনিক মালিক ধরা পড়লো বহুল আলোচিত মধুপুরের চার হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী সাগর আজ দেশের ৯ অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বাড়ছে পেঁয়াজের ঝাঁজ ম্যানসিটিকে হারিয়ে ফাইনালে আর্সেনাল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে টাঙ্গাইল শহর রক্ষা বাঁধ পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ এসপির বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলে চিকিৎসক-শিক্ষার্থীসহ আরও ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত একই পরিবারের ৪ জনকে গলাকেটে হত্যা, আটক ৩ ব্রিজ ভেঙে সিমেন্টবোঝাই ট্রাক বিলে, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন লাল বাদশার দাম ৮ লাখ টাকা করোনায় আক্রান্ত এমপি জোয়াহের ঘরকে ঠান্ডা রাখার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি বিনামূল্যে ফেসবুক ব্যবহারের প্যাকেজে বিটিআরসির নিষেধাজ্ঞা টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচি কার্যক্রমের উদ্বোধন গলার কাঁটা ৩শ ফুট মির্জাপুরের বংশাই রোড
 

করোনাভাইরাস: ঢাকায় টেলিভিশন সাংবাদিক আক্রান্ত, একই চ্যানেলের ৪৭ জন কোয়ারেন্টিনে

বাংলাদেশে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে কর্মরত একজন সাংবাদিকের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

যার দেহে এই সংক্রমণ ঘটেছে, তিনি বেসরকারি ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন চ্যানেলে কর্মরত রয়েছেন।

শুক্রবার টেলিভিশন চ্যানেলটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এম. শামসুর রহমান এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

আক্রান্ত ব্যক্তি ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন চ্যানেলের একজন ক্যামেরাপারসন বলে জানা গেছে।

তিনি করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার পর ওই টেলিভিশন চ্যানেলের আরো ৪৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

এক বিবৃতিতে শামসুর রহমান বলেন, “অত্যন্ত দু:খের সাথে জানাচ্ছি, আমাদের এক সহকর্মী, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন পরিবারের এক সদস্য কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত” হয়েছেন।

তিনি জানান, আক্রান্ত ব্যক্তি সর্বশেষ ২৫ ও ২৬শে মার্চ ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনে কাজ করেছেন। তিনি রাতেই অফিসকে জানিয়েছিলেন যে শারীরিকভাবে অসুস্থ বোধ করায় অফিসে আসতে পারবেন না। এরপর থেকে তিনি সেলফ আইসোলেশনে ছিলেন।

দুইদিন আগে তিনি আইইডিসিআর-এর হটলাইনে টেলিফোন করেন। এরপর তার স্যাম্পল পরীক্ষা করা হয় এবং ওই পরীক্ষায় দেখা যায় যে তিনি করোনাভাইরাস পজিটিভ।

“ওনার সংস্পর্শে যারা এসেছিলেন, (এমন) প্রায় ৪৭ জনের একটা তালিকা আমরা করেছি। আমরা আমাদের সে ৪৭ জন সহকর্মীকে সেলফ আইসোলেশনে পাঠিয়েছি। ২৬ তারিখ থেকে যদি হিসেব করি তাহলে আগামী পাঁচদিনে যদি কারো কোন সিম্পটম গ্রো না করে, তাহলে আর কারো সংক্রমণ হয়নি,” এক ভিডিও বার্তায় শামসুর রহমান জানান।

তিনি বলেন, গণমাধ্যম কর্মীদের সব সময় পেশাগত দায়িত্বপালনের জন্য ঝুঁকির মধ্য দিয়ে কাজ করতে হয়।

“আমি গতকাল আমার সহকর্মীর সাথে কথা বলেছি। উনি রিকভারি করছেন,” বলেন মি. রহমান।

সুত্রঃ বিবিসি

মন্তব্য করুন: